স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি কমায় টমেটো

খাদ্য ও পুষ্টি-allhealthtipsbd.com

প্রতিদিন টমেটো খেলে মধ্যবয়সী নারীদের স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি কমতে পারে। সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা এই তথ্য দিয়েছেন।

মেনোপজ হয়ে গেছে এবং স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি রয়েছে, এমন নারীদের ওপর এই গবেষণা করা হয় যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইওতে। গবেষণায় দেখা গেছে, কমপক্ষে ১০ সপ্তাহ প্রতিদিন টমেটো বা টমেটোর তৈরি খাবার খাওয়ার পর রক্তে এডিপোনেকটিনের মাত্রা নয় শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

এই এডিপোনেকটিন বৃদ্ধির সঙ্গে স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি হ্রাসের সম্পর্ক আগেই প্রমাণিত।

টমেটোতে রয়েছে লাইকোপিন ও অন্যান্য ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট যা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে এবং দেহে ক্যানসার রোধে উপকারী ভূমিকা রাখে।

যুক্তরাষ্ট্রের ব্রেস্ট ক্যানসার ফাউন্ডেশন এই গবেষণাকাজ পরিচালনা করে। মেডপেজ

টমেটোর নানা গুণঃ

শীতকালীন সবজির মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও উল্লেখযোগ্য হলো টমেটো। অ্যান্টি-অক্সিডেন্টে ভরপুর এই টমেটোর আছে নানা গুণ।

—এক কাপ বা ১৮৯ গ্রাম টমেটোতে আছে ৩৮ শতাংশ ভিটামিন সি, ৩০ শতাংশ এ, ১৮ শতাংশ ভিটামিন কে, ১৩ শতাংশ পটাশিয়াম ও ১০ শতাংশ ম্যাঙ্গানিজ। এ ছাড়াও আছে ভিটামিন ই, লৌহ, ফলেট ও আঁশ। এত গুণের কারণে এই মৌসুমে প্রতিদিন সালাদের সঙ্গে টমেটো চাই।

—টমেটো হচ্ছে একমাত্র সবজি যাতে চার রকমের ক্যারোটিনয়েড বা ভিটামিন ‘এ’ আছে বিপুল পরিমাণে। এই ক্যারোটিনয়েড বা ভিটামিন ‘এ’ ত্বক ও চোখের সুস্থতা এবং দেহের রোগপ্রতিরোধক্ষমতা বাড়াতে খুবই উপযোগী।

—ভিটামিন এ, ভিটামিন সি ও ভিটামিন ই—এই তিনটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এত বিপুল পরিমাণে একসঙ্গে অন্য কিছুতে নেই।

—টমেটোর লাইকোপিন প্রস্টেট ও অগ্ন্যাশয়ের ক্যানসার রোধে সাহায্য করে। এটি অগ্ন্যাশয়ের ক্যানসারের ঝুঁকি প্রায় ৩১ শতাংশ কমাতে পারে।

—পটাশিয়ামের খুবই ভালো উৎস টমেটো। এক কাপ টমেটোর জুসে প্রায় ৫৩৪ মিলিগ্রাম পটাশিয়াম আছে। তবে এই জন্য কিডনি রোগীদের আবার বেশি টমেটো খাওয়া মানা।

 

About নওরীন জাহান

View all posts by নওরীন জাহান →