টক-ঝাল,ঝাল-টক-মিষ্টি জেনে নিন তেমন কিছু দারুণ জলপাইয়ের আচার রেসিপি

http://allhealthtipsbd.com

মৌসুমি ফল জলপাই মোটামুটি সবাই পছন্দ করেন। আর ভরা মৌসুমে কি জলপাইয়ের আচার তৈরি না করলে চলে? জলপাইয়ের একটা বড় সমস্যা হলো, এ আচার কিছুতেই সুস্বাদু হতে চায় না। অনেকের আচারই বেশ শক্ত রয়ে যায়। আবার অনেকেই জানেন না জলপাইয়ের মিষ্টি আচার তৈরির রেসিপি। তাই আজ আপনাদের জানাচ্ছি কীভাবে তৈরি করবেন জলপাইয়ের ভিন্ন স্বাদের আচার। জেনে নিন তেমন কিছু দারুণ রেসিপি। টক-ঝাল, টক-ঝাল-মিষ্টি এবং জলপাইয়ের মিষ্টি আচার।

রেসেপি ১ঃ-

উপকরণ:
জলপাই ১ কেজি। আদা ও রসুন বাটা দেড় টেবিল-চামচ করে। সরিষাবাটা ৩,৪ টেবিল-চামচ। হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ। মরিচগুঁড়া ২ চা-চামচ। লবণ স্বাদ মতো। চিনি ১ চা-চামচ। সরিষার তেল দেড় কাপ। সিরকা বা ভিনিগার ৩০০ মিলি। আস্ত পাঁচফোড়ন ২ চা-চামচ। রসুনের কোঁয়া ৩টি। আস্ত শুকনামরিচ ইচ্ছা মতো। শুকনা মরিচকুচি ২,৩ টেবিল-চামচ।

পদ্ধতি:
জলপাই ধুয়ে, পানি মুছে দুপাশ দিয়ে কেটে নিন। হাঁড়িতে তেল গরম করে আস্ত পাঁচফোড়ন, আদা-রসুন ও সরিষাবাটা দিয়ে কষিয়ে নিন। অল্প ভিনিগার দিয়ে, গুঁড়া মসলাগুলো কষিয়ে নিন খুব ভালো ভাবে।

মসলার তেল ছেড়ে আসলে বাকি ভিনেগার ও জলপাই দিয়ে মিশিয়ে নিন।চিনি ও লবণ দিন। আঁচ কমিয়ে রান্না করুন। জলপাই সিদ্ধ হয়ে তেল ছেড়ে আসলে নামিয়ে নিন।ঠাণ্ডা করে রসুনের কোঁয়া ও শুকনামরিচ মিশিয়ে বয়ামে করে ভরে রাখুন।

রেসেপি ২ঃ-

উপকরণ :
জলপাই ৫০০ গ্রাম, সরিষার তেল পরিমাণ মতো, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, লাল গুঁড়া মরিচ ২ টেবিল চামচ, পাঁচফোড়ন ১ টেবিল চামচ, শুকনা লাল মরিচ ২-৪টি আস্ত, হলুদ গুঁড়া সামান্য এবং বিট লবণ ১ চা চামচ। ধনিয়া ও শুকনা মরিচ টেলে নিয়ে গুঁড়া করতে হবে ৩ টেবিল চামচ।

পদ্ধতি:
প্রথমে জলপাইয়ের বোঁটা ফেলে ভালো করে ধুয়ে নিন। কাঁটাচামচ দিয়ে কেঁচে সামান্য লবণ ও হলুদ মাখিয়ে ২ দিন রোদে দিন। দুই দিন পর সরিষার তেল, শুকনা মরিচসহ গরম করে নিন। এই তেল ঠাণ্ডা হলে তাতে জলপাইসহ অন্য সব মসলা ও লবণ দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে নিন। বয়ামে ভরে প্রায় প্রতিদিনই এ আচার রোদে রাখতে হবে। খাওয়ার আগে অন্তত ১৫ দিন রোদে দিন। এই আচার নিয়মিত ভালো করে রোদে দিলে প্রায় ১ বছর খাওয়া যেতে পারে।

রেসেপি ৩ঃ-

উপকরণ :
জলপাই ৫০০ গ্রাম, চিনি পরিমাণ মতো, লাল গুঁড়া মরিচ ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, সরিষার তেল পরিমাণ মতো, পাঁচফোড়ন ১ চা চামচ, লাল মরিচ টেলে গুঁড়া করা ১ টেবিল চামচ এবং পানি পরিমাণ মতো, সিরকা (সাদা) আধা কাপ।

পদ্ধতি:
প্রথমে জলপাই কেঁচে নিয়ে লবণ ও পানিসহ সেদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। তারপর একটি কড়াইতে তেল গরম করে তাতে পাঁচফোড়ন দিয়ে একে একে সিরকা, লবণ ও গুঁড়া মসলা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিয়ে জলপাই দিন। আরো কিছুক্ষণ নেড়ে চিনি ও পরিমাণ মতো পানি দিয়ে আবার চুলায় ২০ মিনিট রেখে রান্না করুন। ঠাণ্ডা হলে বয়ামে ভরে ফ্রিজে রাখতে হবে। এ আচার ফ্রিজেই রেখে সংরক্ষণ করুন।

রেসেপি ৪ঃ-

উপকরণ :
জলপাই ৫০০ গ্রাম, গুড় পরিমাণ মতো, পাঁচফোড়ন আধা চা চামচ এবং পানি পরিমাণ মতো, সরিষার তেল ১ চা চামচ।

পদ্ধতি:
জলপাই ভালো করে ধুয়ে রাখুন। পরিমাণ মতো জলপাই সেদ্ধ করে পানি ফেলে দিন। একটি ফ্রাই প্যানে তেল গরম করে তাতে পাঁচফোড়ন দিন। এরপর এতে গুড় ও সামান্য পানি দিয়ে নাড়তে থাকুন। মিশ্রণ ঘন হলে এতে সেদ্ধ করা জলপাই দিয়ে নাড়তে থাকুন। আচার বেশ ঘন হয়ে এলে সেটি নামিয়ে বয়ামে ভরে ফ্রিজে রেখে সংরক্ষণ করুন।

রেসেপি ৫ঃ-

উপকরণ:
জলপাই-১ কেজি। গুড়-১ কাপ, চিনি চার ভাগের এক কাপ, পাঁচফোড়ন দেড় টে. চামচ, মরিচ গুঁড়া-১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া-১ চা চামচ, আদা বাটা-১ চা চামচ, রসুন বাটা-১ টে. চামচ, তেজপাতা-২টা, সরিষার তেল-আধা কাপ, সিরকা আধাকাপ, শুকনা মরিচ-৪টা।

পদ্ধতি:
প্রথমে জলপাই পানি দিয়ে সিদ্ধ করে ভালভাবে ভেজে নিতে হবে। এখন হাঁড়িতে তেল গরম করে তেজপাতা ও শুকনা মরিচ দিয়ে সব মসলা দিয়ে কষাতে হবে। কষানোর সময় সিরকা দিতে হবে। এখন জলপাই দিয়ে চিনি ও গুড় দিতে হবে।

হয়ে গেল খিচুড়ির সঙ্গে পরিবেশন করুন। ডুবো তেলে জলপাই এর ঝাল আচার

রেসেপি ৬ঃ-

উপকরণঃ
জলপাই ১ কেজি (একই আকারের হলে ভাল হয়) শুকনা মরিচ ১২ টা মাঝারী সাইজের মৌরি ১ টেবিল চামচ রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ হলুদের গুঁড়া ১ টেবিল চামচ জিরা গুঁড়া ১ চা চামচের একটু কম মিষ্টি জিরা ২ চা চামচ সরিষার গুঁড়া/বাটা ১ টেবিল চামচ লবন ১ চা চামচ চিনি ৩ কাপ সরিষার তেল ৩ কাপ পাঁচফোড়ন আধা চা চামচ

পদ্ধতি:
একই আকারের বেছে নেয়া জলপাই গুলো ভাল করে ধুয়ে এবার ১ লিটার পরিমান পানিতে সিদ্ধ দিতে হবে। ৮ মিনিট পরে নামিয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। কোন কিছুতে সিদ্ধ করা জলপাই গুলো ছড়িয়ে দিন, এতে জলপাইয়ের গায়ে লেগে থাকা পানি শুকিয়ে যাবে। এরপর বটি দিয়ে ফালি করে কাটুন সেদ্ধ করা জলপাই গুলো। পাতিলে তেল গরম করে এতে রসুন, সরিষা দিয়ে ৫ মিনিট কষাতে হবে। এবার কাটা জলপাই দিয়ে আস্তে আস্তে নাড়তে থাকুন। ১০ মিনিট পরে হলুদের গুঁড়া ও মরিচের গুঁড়া দিয়ে নাড়ুন। জিরা, পাঁচফোড়ন ও চিনি দিয়ে অল্প আঁচে নাড়ুন। তেল খানিকটা উপরে উঠলে নামিয়ে নিন এবং একটি গামলায় (মেলামাইনের হলে ভাল হয়) ছড়িয়ে দিন। এবার কড়া রোদে ৩ থেকে ৪ ঘন্টা শুকাতে দিন, রোদে পানি টেনে নিয়ে আচার চটচটে হলে বৈয়ামে ভরে রাখুন।

মাঝে মাঝে আচারের বৈয়াম রোদে দিতে পারেন আচার ভাল থাকবে।

About নওরীন জাহান

View all posts by নওরীন জাহান →